Main Menu

৭ নভেম্বরের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে: নাসিম হোসাইন

সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন বলেছেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হয়েছিল দেশের জনগণের ভোট ও ভাতের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য। কিন্তু আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসে গণতন্ত্রের পথ বন্ধ করে দিয়েছিল, আর ৭ই নভেম্বর সিপাহী ও জনতার বিপ্লব ও সংহতির মাধ্যমে বিরোত্তম জিয়াউর রহমান দেশের জনগণের অধিকার ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। আওয়ামীলীগ সরকার কখনো দেশের গণতন্ত্র চায়নি। আওয়ামীলীগ সরকার এখনো গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে আছে। তিনি বলেন, ‘যতই জুলুম-নিপীড়ন চালানো হোক না কেনো, বিপ্লবীদের দমিয়ে রাখার সাধ্য কারো নেই। ৭ই নভেম্বরের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে সবাইকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। সরকারকে ভুলে গেলে চলবে না শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও বাংলাদেশ একইসূত্রে গাঁথা। ‘যতদিন স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ থাকবে, এর ইতিহাসে ৭ নভেম্বর একটি উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করে থাকবেই। অবৈধ সরকার বিপ্লবের চেতনাকে ভয় পায়। বিপ্লব এ দেশের মানুষের শিরায় শিরায় বহমান। দেশী-বিদেশী সকল ষড়যন্ত্র নস্যাত করে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষার দীপ্ত শপথ নিতে হবে।’

তিনি বৃহস্পতিবার ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে সিলেট মহানগর বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মহানগর বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. আশরাফ আলী।

সিলেট মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত চৌধুরী সাদেকের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, সিলেট মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি এডভোকেট হাবিবুর রহমান হাবিব, হুমায়ুন কবির শাহীন, রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী, আব্দুস সাত্তার, জিয়াউল হক জিয়া, ডা. নাজমুল ইসলাম, অধ্যাপিকা সামিয়া চৌধুরী, আবুল ফাত্তাহ বকশী, যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট শামীম সিদ্দিকী, এডভোকেট আতিকুর রহমান সাবু, হুমায়ুন আহমদ মাসুক, আলী হোসেন বাচ্চু, মহানগর যুবদলের আহŸায়ক নজিবুর রহমান নজিব, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কাউন্সিলর তৌফিকুল হাদী, মুর্শেদ আহমেদ মুকুল, মাহবুব চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক রেজাউল করিম আলো, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট বদরুল আলম, মহানগর যুবদলের সদস্য সচিব শাহ নেওয়াজ বখত চৌধুরী তারেক, মহানগর শ্রমিক দলের সভাপতি ইউনুস মিয়া, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রশীদুল হাসান খালেদ, আফসর খান, মহানগর কৃষক দলের সদস্য সচিব মারুফ আহমদ টিপু, মৎস্যজীবী দলের সদস্য সচিব দুলাল আহমদ, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন, মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল ইসলাম।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি আব্দুর রহিম, বাবু নিহার রঞ্জন, আমির হোসেন, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতা সিদ্দিকী, প্রচার সম্পাদক শামীম মজুমদার, প্রকাশনা সম্পাদক জাকির হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক হাবিব আহমদ চৌধুরী শিলু, পরিবার কল্যাণ সম্পাদক লল্লিক আহমদ চৌধুরী, আপ্যায়ন সম্পাদক আফজাল উদ্দিন, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আব্দুল কাহির, সহ দপ্তর সম্পাদক লোকমান আহমদ, সহ আইন সম্পাদক এডভোকেট মুমিনুল ইসলাম মুমিন, সহ শিল্প সম্পাদক নজির হোসেন, সহ যোগাযোগ সম্পাদক উজ্জল রঞ্জন, সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদক কয়েস আহমদ সাগর, সহ সমাজসেবা সম্পাদক মফিজুর রহমান জুবেদ, মহানগর যুবদলের আহবায়ক কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন মানিক, তোফাজ্জল হোসেন বেলাল, সাহিবুর রহমান সুজান, শাহেদ আহমদ চমন, সোহেল মাহমুদ, জেলা যুবদলের আহবায়ক কমিটির সদস্য কবির উদ্দিন প্রমুখ।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *