Main Menu

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে দুইপক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৩০

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের মথুরাপুর গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত ও অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৭ টা থেকে ১০ টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টাব্যাপি এই সংঘর্ষে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

 

খবর পেয়ে আশপাশের গ্রামের লোকজন ও পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ফের সংঘর্ষের আশংকায় মধুরাপুর বাজার ও গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ের করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে মধুরাপুর গ্রাম থেকে ১২ জন আটক করেছে পুলিশ। দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান।

পুলিশ ও স্থানীয়রা, মধুরাপুর গ্রামের নুর জালাল ও দিল হকের লোকজনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমাসহ নানা বিষয়ে বিরোধ চলছে। গ্রামের দুই পক্ষের মধ্যে বেশকিছুদিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। উভয়পক্ষের মধ্যে মামলা-মোকদ্দমা চলমান রয়েছে। সেই বিরোধের জের ধরে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আজ মঙ্গলবার সকাল ৭ টায় প্রথমে মথুরাপুর বাজারে পরে গ্রামে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। প্রতিপক্ষের আঘাতে নিহত হয় নুর জালালের ছোট ভাই নূর মোহাম্মদ (৪৫)। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। আহতদের দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মধুরাপুর গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য আইয়ুব খান বলেন,‘দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে মামলা-মোকদ্দমা চলছে। বিরোধের জের ধরেই দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।’

দিরাই থানার ওসি আশরাফুল ইসলাম বলেন,‘ দুই পক্ষের মধ্যে জমি, জলমহালসহ নানা বিরোধ রয়েছে। সেই বিরোধের জের ধরেই মঙ্গলবার সংঘর্ষ হয়েছে।সংঘর্ষে একজন নিহত ও কয়েকজন আহত হয়েছে। গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) হায়াতুন নবী জানান,দিরাইয়ের মথুরাপুরের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় ১২ জনকে আটক করা হয়েছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *