Main Menu

আওয়ামীলীগ নেতা আলমগীর কবিরের মৃত্যুতে প্রভাষক সুয়েবুর রহমানের শোক

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য, ধরমপাশা উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি, সাহসী ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ আলমগীর কবির এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ধরমপাশা উপজেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ও সিলেট মদনমোহন কলেজের প্রভাষক মোহাম্মদ সুয়েবুর রহমান সুয়েব।

করোনা আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে গত ৬ সেপ্টেম্বর রাতে সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে যান।

শোকবার্তায় প্রভাষক সুয়েব একদিনের ঘটনা স্মরণ করতে গিয়ে বলেন, সুনামগনজ-১ আসনের এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এর বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করতে গিয়ে হাওরেই রাত হয়ে যায়। আমরা গোলকপুর বাজারে চেয়ারম্যান ফজলুর রহমানের বাড়ীতে রাতে খাওয়া শেষে ধরমপাশায় রওনা দেই। বর্ষার পানি শেষ দিকে, ভীষণ অন্ধকার রাতে স্পীড বোটের চালক নতুন, রাস্তা চেনা যায় না। আলমগীর বল্লেন, কোন ভয় নেই এমপি সাব। আমিও সাথে ছিলাম। আলমগীরের সহযোগিতায় আমরা ধরমপাশায় পৌঁছলাম।

মরহুম আলমগীর অত্যন্ত সাহসী, বিচক্ষণ ও মেধাবী ছিলেন। হাওরের মেঠো পথ থেকে শুরু করে রাজপথে আগের সারির তুখোর নেতা ছিলেন তিনি। আওয়ামীলীগের দুর্দিনে তিনি দলের কাণ্ডারী হিসেবে কাজ করেছেন। দলকে সুসংগঠিত করেছেন, তৃণমূলের নেতাকর্মীদের আপন করে নিয়েছেন। হাওরের জেলা সুনামগঞ্জের মাটি ও মানুষের সাথে তাঁর আত্মার সম্পর্ক। তিনি সকলের অতি আপনজন ছিলেন। তাঁর শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়। তাঁর কর্ম দলকে সামনে এগিয়ে নেওয়ার সাহস ও শক্তি যোগাবে।

প্রভাষক মোহাম্মদ সুয়েবুর রহমান সুয়েব মহান আ্ল্লাহ তায়ালার কাছে কৃতিমান নেতা আলমগীর কবিরের জান্নাতুল ফেরদৌস কামনা করেন এবং তাঁর পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *