Main Menu

প্রয়াত মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপির জন্য দোয়া চাইলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

জাহাঙ্গীর আলম মুসিক, দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি :

 

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে গতকাল ১০ জুন বৃহস্পতিবার সকাল ১০.৩০টায় ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা নির্মাণাধীন ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের মধ্যে প্রথম ৫০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের মধ্যে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শুভ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র শুভ উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ইসলামের প্রকৃত মর্মবাণী প্রচার এবং সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে বিশেষ অবদান রাখবে দৃষ্টিনন্দন মসজিদগুলো। ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে প্রচার ও প্রসার মাধ্যম হচ্ছে উপজেলা মডেল মসজিদ। মুষ্টিমের লোক সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে পবিত্র ধর্ম ইসলামের বদনাম করছে। ধর্ম ব্যবহার করে সন্ত্রাস ও জঙ্গি কার্যক্রম চলতে দেওয়া হবে না।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দক্ষিণ সুরমার সাথে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে বলেন, দুঃখজনক যে মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি মারা গেলেন খুবই দুঃখজনক। তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করি। সে বেঁচে থাকলে খুব বেশি খুশি হতো আজকে। আমাদের সংসদ সদস্য যিনি প্রয়াত মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী তার জন্য সবাই দোয়া করবেন।
১৩ কোটি টাকা ব্যায়ে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়। ২০১৮ সালের ৫ই এপ্রিল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপির উপস্থিতিতে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৩ বছরের মাথায় নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০.৩০ মিনিটে উদ্বোধন করেন।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশে নৈখাই মৌজাই ৪৩ শতক ভূমির উপর তিন তলা বিশিষ্ট ১৮ হাজার ৭ শত বর্গফুট মসজিদ টিতে রয়েছে গাড়ি পাকিং , জেনারেটর কক্ষ, লাশ গোসলের কক্ষ ইমাম, মোয়াজ্জিন ও খাদিমের কক্ষ। পুরুষ মুসল্লিদের নামাযের স্থান, লাইব্রেরি, ইমাম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ডাইনিং রুম, প্রতিবন্ধীদের কর্ণার, অক্ষম ব্যক্তিদের জন্য নামাজ কক্ষ, ইসলামিক ফাউন্ডেশন বুক সেলস সেন্টার ও ওজুখানা, কনফারেন্স রুম, টয়লেট, উপ পরিচালকের কক্ষ, হিসাব কক্ষ, অতিথিদের থাকার রুম, পুরুষ ও মহিলাদের পৃথক পৃথক নামাজের স্থান, মন্তব্য কক্ষ, ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার, সাধারণ কর্মচারীদের কক্ষ ও একটি সুউচ্চ দৃষ্টি নন্দন মিনার রয়েছে। এই মসজিদে একসাথে এক হাজার মুসল্লী নামায আদায় করতে পারবেন।

দক্ষিণ সুরমায় ভিডিও কনফারেন্সের সময় উপস্থিত ছিলেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ খলিলুর রহমান, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি অব পুলিশ মফিজ উদ্দিন আহমেদ পিপিএম, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব আবুল কাশেম মোঃ শাহিন, সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, গণপূর্ত বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী কাজী মোঃ আবু হানিফ, সিলেটের পুলিশ সুপার মোঃ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাছির উদ্দিন খান, সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু জাহিদ, ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম আহমদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশন সিলেটের পরিচালক ফরিদ উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য হাবিবুর রহমান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন সেলিম, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সিলেট-১ এর জেনারেল ম্যানেজার এস এম হাসনাত হাসান, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল হক, জেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছমির মাহমুদ, দক্ষিণ সুরমা প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মুসিক, সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম ইমরান, মোগলাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম সায়েস্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা কুটি মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা আখলাস মিয়া প্রমুখ।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *