Main Menu

সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে সতর্কতা

:: সাদিয়া সরকার অনি ::

সোশ্যাল মিডিয়া এমন একটি প্ল্যাটফরম যেখানে ব্যবহারকারীরা অন্যদের সামনে নিজেদের উপস্থাপন করার একটি সুযোগ পায়। কিন্তু এক্ষেত্রে আমাদের উচিত নিজেকে একটি নির্দিষ্ট গণ্ডিতে আবদ্ধ করা। নিজের ব্যক্তিজীবনকে অতিরিক্ত খোলামেলাভাবে উপস্থাপন করা থেকে বিরত থাকা উচিত। প্রাত্যহিক জীবনের প্রয়োজনীয়-অপ্রয়োজনীয় সমস্ত খুঁটিনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা থেকে বিরত থাকাই শ্রেয়। কারণ সোশ্যাল মিডিয়ার পরিধি অনেক বেশি প্রসারিত এবং এখানে ভালো ও খারাপ উভয় মানসিকতার ব্যবহারকারীই রয়েছে। তাই যতটা প্রয়োজন ততটাই প্রকাশ করা এবং ব্যক্তিজীবনের গোপনীয়তা বজায় রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমরা আমাদের পরিচিত অপরিচিত অনেক মানুষের সঙ্গেই সংযুক্ত হওয়ার সুযোগ পাই, যাকে সোশ্যাল মিডিয়ার ভাষায় বলা হয় ‘ফ্রেন্ড’ বা ‘ফলোয়ার’। তাই সোশ্যাল মিডিয়ার বন্ধু নির্বাচনে বেশ সর্তকতা অবলম্বন করা উচিত। যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়ার পরিসীমা অনেক বড় এবং দিন দিন তা বৃদ্ধি পাচ্ছে তাই সেখানে অনেক ধরনের মানুষ রয়েছে। আর প্রসারতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে বিভিন্ন সোশ্যাল ক্রাইম। ফলে নির্বিচারে বন্ধু নির্বাচন আপনার জীবনে যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্ম দিতে পারে। তাই কাকে বন্ধু নির্বাচন করে আপনার ব্যক্তিজীবনে প্রবেশের অনুমোদন দিচ্ছেন, সে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা উচিত।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রয়েছে ছবি, ভিডিও ইত্যাদি শেয়ার করার সুযোগ। তাই নিজের ছবি বা ভিডিও শেয়ার করার আগে চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নিন। কারণ, আপনার এই ছবি বিনা অনুমতিতে এবং আপনার অজান্তেই যে কোনো অবৈধ কাজে ব্যবহূত হতে পারে, যাতে আপনার গোপনীয়তা ক্ষুণ্ন হয়। এমনকি যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত বিপদেও আপনি পড়তে পারেন। তাই নিজের ও পরিবারের ছবি বা ভিডিও শেয়ার করার ব্যাপারে সর্বোচ্চ সর্তক থাকুন। এক্ষেত্রে প্রাইভেসি মেইনটেইন করুন। সর্বোপরি নিজের এবং পরিবারের একান্ত ব্যক্তিগত ছবি শেয়ার করা থেকে বিরত থাকুন।

সোশ্যাল মিডিয়া একটি সার্বজনীন প্ল্যাটফরম যেখানে বিভিন্ন শ্রেণি, পেশা, ধর্ম ও মতাদর্শের মানুষ রয়েছে। একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে আমাদের প্রত্যেকেরই নিজের মতামত প্রকাশের স্বাধীনতা রয়েছে। তবে তা যেন কোনো মতাদর্শকে ক্ষুণ্ন না করে বা কোনো গোষ্ঠীর ভাবমূর্তিতে আঘাত না হানে সেই দিকে সতর্ক থাকতে হবে। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় কী শেয়ার করছেন বা নিজের মতামতকে কীভাবে অন্যদের সামনে উপস্থাপন করছেন সেই বিষয়টিকে গুরুত্ব সহকারে ভাবতে হবে।

বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রায়শই আমরা আমাদের অর্জন ও প্রতিভাকে অন্যদের সামনে তুলে ধরি। তবে এক্ষেত্রে আমাদের কিছুটা সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। আপনার প্রতিভা বা অর্জনগুলোকে সেভাবেই সবার সামনে উপস্থাপন করুন যেন কেউ হীনম্মন্যতায় না ভুগে। বরং আপনার সাফল্য যেন অন্যদের অনুপ্রাণিত করে। সবার সামনে নিজেকে জাহির করার প্রবণতা পরিত্যাগ করা উচিত। বরং আমাদের উচিত বিনয়ী হওয়া এবং দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে নিজের ভালো কাজ দ্বারা অন্যদের উদ্বুদ্ধ করা।

লেখক :শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *