Main Menu

যুক্তরাষ্ট্রে খোলা মাঠে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক :

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য এবং ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রে উদযাপিত হলো মুসলিম বিশ্বের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমে যাওয়ায় স্থানীয় প্রশাসন এ বছর খোলা মাঠ ও মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ের অনুমতি দিয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বিপুলসংখ্যক মুসল্লির জমায়েত ছিল প্রতিটি ঈদ জামাতে।

এসব ঈদ জামাতে মুসলিম উম্মাহসহ সারা বিশ্বের মানবজাতির কল্যাণ এবং করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। নিউইয়র্কে সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত সকাল সাড়ে ৯টায় কুইন্সের জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের (জেএমসি) উদ্যোগে টমাস এডিসন হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। এখানে একসঙ্গে প্রায় ১২ হাজার মুসল্লি ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন। যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং এবং নিউইয়র্ক সিটির উচ্চপর্যায়ের নির্বাচিত নেতৃবৃন্দ মুসল্লিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এখানে ঈদের নামাজে ইমামতি ও মোনাজাত পরিচালনা করেন জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের খতিব মাওলানা মো. আবু জাফর বেগ। খুতবা পাঠ করেন জেএমসির ইমাম শামসে আলী।

জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মনজুর আহমদ চৌধুরী ইত্তেফাককে জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ বছর মসুল্লিরা ঈদের জামাতে অংশ নিয়েছেন। বিশাল মাঠের বাইরে সড়কেও মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেছেন। নিউইয়র্ক সিটি কর্তৃপক্ষ মুসল্লিদের নামাজ আদায়ের সুবিধার্থে আশেপাশের রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে বাড়তি নিরাপত্তা দেয়। তিনি প্রবাসী বাংলাদেশিদের পক্ষ থেকে সিটি মেয়র বিল ডি. ব্লাজিও, কুইন্স বরো প্রেসিডেন্ট ডনাভান রিচার্ডস এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

ঈদের জামাতে অংশ নেওয়া মুসল্লিরা জানান, গত বছর করোনার কারণে খোলা মাঠে ঈদের জামাত হয়নি। করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে। তারপরও দেশটি করোনাকে জয় করতে পেরেছে। আর এ কারণে হাজার হাজার মানুষ একসঙ্গে ঈদের নামাজ আদায় করতে পেরেছে।

নিউইয়র্কের বাংলাদেশী অধ্যুষিত ব্রঙ্কসের বাংলাবাজার জামে মসজিদ, নর্থ ব্রঙ্কস জামে মসজিদ, জ্যাকসন হাইটসের ইসলামিক সেন্টার, ওজোন পার্কে মসজিদ আল আমান মসজিদ, এস্টোরিয়ায় আল-আমিন মসজিদ, জ্যামাইকার হিলসাইড অ্যাভিনিউর আরাফা ইসলামিক সেন্টার, ব্রুকলিনের বাংলাদেশ মুসলিম সেন্টার, বায়তুল জান্নাহ মসজিদ এবং এলমহার্স্টের বিভিন্ন মসজিদে এক বা একাধিক ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *