Main Menu

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ : মৃত্যুর হারে ছয়ে সিলেট

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর থেকে নারীর মৃত্যুহার কম ছিল। কিন্তু গত মার্চ মাসে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর পর থেকে সিলেটসহ সারা দেশে নারীর মৃত্যুর হার বেড়েছে। গত ১ মার্চ থেকে শনিবার পর্যন্ত মৃতদের ৩২ শতাংশই নারী।

অন্যদিকে দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেশি মৃত্যু হচ্ছে ঢাকা বিভাগে। আর সিলেট রয়েছে ৬ নম্বর স্থানে।

সরকার দেশে করোনায় প্রথম মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে গত বছরের ১৮ মার্চ। মৃত ব্যক্তি ছিলেন একজন ৭০ বছর বয়সী পুরুষ। শুরু থেকেই দেশে নারীর বিপরীতে পুরুষের মৃত্যুহার বেশি ছিল, দিনে দিনে সেটি আরও বাড়তে থাকে। দেশে শনিবার (১৭ এপ্রিল) পর্যন্ত করোনায় মোট মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ২৮৩ জনের। এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যুর ২৬ শতাংশ নারী আর ৭৪ শতাংশ পুরুষ।

মাঝে কয়েক মাস দেশে করোনার সংক্রমণ কম ছিল। এবার মার্চ মাস থেকে করোনার দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। এবার দৈনিক শনাক্ত ও মৃত্যু বেশি হচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, মার্চের ১ তারিখ থেকে শনিবার পর্যন্ত করোনায় ১ হাজার ৮৭৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ২৭৬ জন পুরুষ (৬৮ শতাংশ)। আর ৫৯৯ জন নারী (৩২ শতাংশ)।

তবে কেন নারীদের মৃত্যু আগের চেয়ে তুলনামূলক বেশি হচ্ছে, তার কোনো ব্যাখ্যা পাওয়া যাচ্ছে না। বিশ্বের সব দেশেই দেখা যাচ্ছে ডায়াবেটিস, হৃদ্‌রোগ, উচ্চ রক্তচাপ, শ্বাসতন্ত্রের রোগের মতো দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে করোনাভাইরাসে মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, মৃতদের অনেকেই হয়তো জানতেন না যে তাঁর দীর্ঘমেয়াদি অন্য রোগ ছিল।

এদিকে, গত মার্চের শুরু থেকে শনিবার (১৭ এপ্রিল) পর্যন্ত মৃত্যুর হার ঢাকা বিভাগে ৬৮ শতাংশ, চট্টগ্রামে ১৬ দশমিক ৬০ শতাংশ, খুলনায় ৪ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ, রাজশাহীতে ৩ দশমিক ৬২ শতাংশ, বরিশালে ২ দশমিক ৮৩ শতাংশ, সিলেটে ২ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ , রংপুরে ১ দশমিক ৮১ শতাংশ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে (সবচেয়ে কম) ১ দশমিক ১৭ শতাংশ।



« (Previous News)



Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *