Main Menu

কয়েক তরুণ যুবকের শিমুল বাগান, নিলাদ্রী লেক ভ্রমণ

ভ্রমণ মানুষকে শেখাতে চায়। ভ্রমণ-বিনোদনের পাশাপাশি জ্ঞানের অনেক দোয়ার খুলে দেয়। নিজ আয়ত্বে ভৌগলিক সীমা রেখায় অনেক গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন স্থান লোকায়িত রয়েছে। গত বুধবার সিলেট মহানগরীর টিলাগড় এলাকার বাসিন্দা ও প্রবাসী পরিবারের সন্তান এস.আই নাজির ও এস. রাজ আহমদের নেতৃত্বে কয়েকজন তরুণ যুবক মিলে ভোর বেলা ভ্রমণে বের হন। তারা সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার মানিগাঁওয়ে অবস্থিত জয়নাল আবেদীনের বিনোদন কেন্দ্র শিমুল বাগান ভ্রমণ করেন।

ভ্রমণকারীরা বলেন, শিমুল বাগান আকর্ষণীয় একটি স্থান। কিন্তু যোগাযোগ বিচ্ছন্ন অবস্থায় ভ্রমণ পিপাসু মানুষ সেখানে কষ্ট করে যান। শিমুল বাগানের কাছে জাদুকাটা নদী অবস্থিত। নদীর উত্তর দিকে ভারতের পাহাড় টিলার সীমানা। জাদুকাটা নদী শুকিয়ে গেছে। চারদিকে ধু ধু বালুচর জেগে ওঠেছে। নদীর ঠিক মাঝখানে পানি বয়ে যাচ্ছে। মেশিন চালিত নৌকা দিয়ে মোটর বাইক সহ মানুষকে পারাপার করতে হয়।

ভ্রমণকারী তরুণ যুবকরা সেখান থেকে তাহিরপুরের ঐতিহাসিক নিলাদ্রী লেক দেখতে যান। নিলাদ্রী লেকের উত্তরপারটি ভারতের কালো পাহাড় সংলগ্ন। এটি দেখতে খুবই চমৎকার। তবে অপরূপ সুন্দর নিলাদ্রী লেকের পানি। লেকটির ভেতর অনেক গভীরতা রয়েছে বলে শোনা গেছে। লেকের পশ্চিমপারে বিজিবি’র একটি ক্যাম্প অবস্থিত রয়েছে। লেকের পশ্চিমে পানির মাঝখানে ছোট ছোট তিনটি দ্বীপের মত টিলা রয়েছে। পানির মধ্যে এইগুলো থাকায় সবার দৃষ্টি কেড়ে নেয়। এগুলো দেখতে চমৎকার।

এ দুটি বিনোদন কেন্দ্রে যেতে হলে সুনামগঞ্জ শহর থেকে মোটর সাইকেল যোগে অনেক কষ্ট করে সরু আঁকা বাকা পথ দিয়ে যেতে হয়।

ভ্রমণকারীদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন লেখক-সাংবাদিক রুহুল ইসলাম মিঠু, তারেক রহমান, মোঃ সামী, রেজাউল চৌধুরী, তানিম আহমদ।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *