Main Menu

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে হলুদের মোরব্বা

মোরব্বা বলতে মাথায় আসে মিষ্টি এক খাবার। মোরব্বা হয়তো কচি লাউ, নয়তো আমলকী, আর নয়তো আমের মোরব্বার কথা জানা আছে। কিন্তু কাঁচা হলুদের মোরব্বা শোনার পর হয়তো আকাশ থেকে পরার মতো অবস্থা হওয়া স্বাভাবিক। তবে, এই মোরব্বাটিও অন্যান্য মোরব্বার মতই সুস্বাদু ও মুখরোচক।

রেসিপিটি তৈরি করেছেন ভারতীও এক ব্যাক্তি, অজয় মার্কান; তিনি বর্তমানে সিগনেট হোটেল এবং রিসর্টের একজন রাঁধুনি হিসেবে কর্মরত আছেন।

তিনি বলেন, “সারা পৃথিবীর রান্না ঘরের অন্যতম প্রধান একটি উপাদান হলো হলুদ, স্বাদের ভিন্নতার কারনে বিভিন্ন খাবারের এর মসলা হিসেবে ব্যাবহার ব্যাপক ভাবে লক্ষণীয়। হলুদের নানা ধরনের ব্যাবহার পরিলক্ষিত হয়, কাঁচা হলুদ, শুকিয়ে, আবার সব থেকে বেশি বেশি দেখা যায় গুড়ো করে ব্যাবহার করতে। কিন্তু আমি হলুদে নতুনত্ব দিতে চেয়েছি, এবং ঠিক তখনই মাথায় আসে এই চমৎকার মোরব্বার কথা।”হলুদের মোরব্বাটি একটি মিষ্টি খাবার, অন্যান্য মিষ্টি খাবার গুলোর মতই। কুসুম গরম দুধের সাথে খেলে সব থেকে বেশি স্বাদ লাগে। মহামারীর এ সময় এটি একটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির হাতিয়ার বলেও অজয় মন্তব্য করেন। সব থেকে ভালো কথা হলো এই খাবারের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

কাঁচা হলুদের মোরব্বাটির উপকরন গুলো হলো,

কাঁচা হলুদ- ২৫০ গ্রাম

খাওয়ার সোডা- ৩ গ্রাম

সাদা সিরকা- ৪ টেবিল চামচ

চুন- ১০ গ্রাম

চিনি- ৫০০ গ্রাম

আরও পড়ুন: উলিপুরের ক্ষীরমোহন

একটি বাটিতে ৩০০ মিলিলিটার পানি নিয়ে তাতে চুন গুলিয়ে নিতে হবে। কাঁচা হলুদ গুলোকে ছিলে নিয়ে এই পানিতে কমপক্ষে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে। এবারে আলাদা একটা প্যানে পানি ফুটিয়ে নিতে হবে। ফুটন্ত পানিতে সোডা, সিরকা, এবং হলুদ গুলো দিয়ে দিতে হবে। দশ মিনিট নেড়ে নেড়ে নামিয়ে নিতে হবে। আলাদা একটি প্যানে চিনির সিরাপ তৈরি করে নিতে হবে, এবং হলুদ গুলো দিয়ে ১৫ মিনিট রান্না করতে হবে। অতঃপর নামিয়ে ঠাণ্ডা করে পরিবেশন করতে হবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *