Main Menu

২০৩০ সালের মধ্যে ডিজেল ও পেট্রল চালিত গাড়ি রাস্তা থেকে সরিয়ে নেবে যুক্তরাজ্যে সরকার

আগামী এক দশকের মধ্যে যুক্তরাজ্যে সব ধরনের ডিজেল ও পেট্রল চালিত গাড়ি নিষিদ্ধ হয়ে যাবে। এর বদলে রাস্তায় জায়গা করে নেবে ইলেক্ট্রিক গাড়ি, যা চলবে ব্যাটারিতে। এই ব্যাটারি কীভাবে চার্জ হবে, কতক্ষণ চার্জ দিতে হবে এবং একবার চার্জ দিলে কতক্ষণ চালানো যাবে তা নিয়ে তৈরি হয়েছে অনেক প্রশ্ন। সেসবের উত্তর এ ফিচারে দেওয়া হলো।

বাসায় যেভাবে চার্জ করা যাবে

বাসার মেইন ইলেক্ট্রিসিটি সাপ্লাই দিয়েই ইলেকট্রিক গাড়ি চার্জ করা যাবে। তবে ইলেক্ট্রিসিটি আর গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা থাকাই সব নয়। মেইন ইলেক্ট্রিসিটি সাপ্লাইয়ের বিদ্যুত্ দিয়ে ব্যাটারি চার্জ হতে অনন্ত ৮ থেকে ১৪ ঘণ্টা সময় লাগবে। বড় গাড়ির ক্ষেত্রে সময় লাগবে ২৪ ঘণ্টার বেশি।

চার্জের খরচ

ব্যাটারি চার্জের খরচ ইলেক্ট্রিসিটি বিলের সঙ্গেই যুক্ত হবে। সে হিসাবে বছরে বাড়তি হিসেবে ইলেক্ট্রিসিটি বিল দিতে হবে ৪৫০ পাউন্ড থেকে ৭৫০ পাউন্ড। ডিজেল পেট্রলের চেয়ে ব্যাটারি চার্জের খরচ অনেক কম। তবে ছোট গাড়ির চেয়ে বড় গাড়ির খরচ বেশি হবে। রাতের বেলা গাড়ি চার্জ করেও খরচ কমানো যাবে।

পাবলিক চার্জিং পয়েন্ট

সরকারই রাস্তায় চার্জিং পয়েন্ট স্থাপনের ব্যবস্থা করছে। ল্যাম্প পোস্টের নিচেই হবে এ চার্জিং পয়েন্ট। সেখানে থাকা প্ল্যাগ দিয়ে গাড়ি চার্জ করা যাবে। এই চার্জিং পয়েন্ট কোথায় কোথায় আছে তা জানতে ডাউনলোড করতে হবে বিশেষ অ্যাপ।

ইতোমধ্যে পুরো যুক্তরাজ্যজুড়ে ৩০ হাজারের বেশি চার্জিং স্টেশন আছে। শুধু গত বছরই ১০ হাজার চার্জিং স্টেশন তৈরি করা হয়েছে। আরও অসংখ্য চার্জিং পয়েন্ট তৈরি করতে ১.৩ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে যুক্তরাজ্য সরকার। চাইলে এসব চার্জিং স্টেশন থেকে মাসিক ভিত্তিতে বা ব্যবহার অনুযায়ী অর্থ পরিশোধ করা যাবে।

ইলেক্ট্রিক গাড়ির অন্যতম বড় নির্মাতা কোম্পানি টেসলা ‘সুপারচার্জারস’ ব্যাটারি তৈরি করছে। এর মাধ্যমে মাত্র ৩০ মিনিটেই ৮০ শতাংশ ব্যাটারি চার্জ করা যাবে। টেসলা গাড়ির মালিকেরা এতোদিন সুপারচার্জার নেটওয়ার্ক ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারলেও এখন সবাইকেই সেবাটি নিতে অর্থ দিতে হবে।

কোন গাড়ির কেমন রেঞ্জ

রেনাল্ট জো চলবে ৩৩৮ মাইল, হুন্দাই আইওএনআইকিউ চলবে ১৯৩ মাইল, নিশান আইওএন আইকিউ চলবে ১৯৩ মাইল, টেসলা মডেল ৩এসআর প্লাস চলবে ২৫৪ মাইল, টেসলা মডেল ৩ এলআর চলবে ৩৪৮ মাইল।

চার্জ থাকবে কতোক্ষণ?

ফোনের লিথিয়াম আয়নভিত্তিক ব্যাটারিই গাড়িতে ব্যবহূত হবে। তাই ফোনের ব্যাটারির মতোই সময়ের সঙ্গে সঙ্গে গাড়ির ব্যাটারির শক্তিও কমে যাবে। অতিরিক্ত সময় ধরে চার্জ করলে বা ভোল্টেজের পরিমাণ সঠিক না হলেও ব্যাটারি দ্রুত নষ্ট হবে। যত্ন অনুযায়ী একটি ব্যাটারি ৮ থেকে ১০ বছর পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে।

উল্লেখ্য, কার্বন নিঃসরণ কমাতে আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে ডিজেল ও পেট্রল চালিত গাড়ি রাস্তা থেকে সরিয়ে নেবে যুক্তরাজ্যে সরকার।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *