Main Menu

সুস্থ নখের জন্য করণীয়

বড় নখ অনেকেই রাখতে পছন্দ করেন। কিন্তু নখ শুধু বড় করলেই হবে না, বরং তা যত্ন করে সুন্দর করে তোলা দরকার। লম্বা, সুন্দর, স্বাস্থ্যবান নখের জন্য অবশ্যই পর্যাপ্ত সময় দিতে হবে।

নিয়ম মতো নখ কাটার একটা অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। এতে করে নখের বিন্যাস ঠিক থাকবে। এমনকি নখগুলো আরো মসৃণ হবে। নখ কাটার পর অবশ্যই হাত ভালো করে ধুয়ে যেকোনো ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে হবে।

নখ সুন্দর দেখানোর জন্য অনেকেই বিভিন্ন ধরনের নেইলপলিশ ব্যবহার করে থাকেন। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই পাতলা ধরনের নেইলপলিশ ব্যবহার করতে হবে। ভারি কোনো নেইলপলিশ নখের ক্ষতি করে।

আবার নেইলপলিশ ব্যবহার করলে তা তোলার ক্ষেত্রেও অনেককে ভোগান্তিতে পরতে হয়। যেমন, নেইল রিমুভার কোনটা ভালো হবে; কোনটা ব্যবহারে নখের ক্ষতি কম হবে; কোনটা ব্যবহারে কম সময়ে নখ থেকে নেইলপলিশ পরিষ্কার করা যাবে ইত্যাদি। তবে ভুলেই খারাপ নেইল রিমুভার ব্যবহার করা যাবে না।

অনেকের নখ অনেক বেশি রুক্ষ হয়ে থাকে। সে সমস্যা সমাধানের জন্য নখে তেল ব্যবহার করা যেতে পারে। তেলের ক্ষেত্রে নারিকেল তেল, অ্যাভোকাডো অয়েল, এবং বাদামের তেল ব্যবহার করা যেতে পারে। প্রতিদিন রাতে অল্প একটু করে তেল নিয়ে তা নখে মাসাজ করতে হবে। তবে অবশ্যই ধুয়ে ফেলা যাবে না। কারণ সারা রাতেই তেল নখে থাকলে তা নখগুলো মসৃণ করার সময় পাবে। তেলের পরিবর্তে ভেসলিনও ব্যবহার করা যেতে পারে।

ভিটামিনের পাশাপাশি অন্যান্য পদার্থের ভূমিকা আমাদের দেহের সুস্থ বিকাশের জন্য সব সময় বিশেষ ভূমিকা রাখে। তাই ভিটামিন অবশ্যই আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় থাকতে হবে। নখের বিকাসে পর্যাপ্ত ভিটামিন-বি, ভিটামিন-এ, ভিটামিন-সি, প্রোটিন এবং ক্যারোটিন আমাদের দেহে পোঁছতে হবে।

প্রায় সকল সাবানে এবং ওয়াশিং পাউডারে অনেক বেশি পরিমাণে ক্ষার থাকে, যা নখের জন্য ক্ষতিকারক। এ সকল পণ্য নখকে দুর্বল করে ভেঙ্গে ফেলে। শুধু তাই নয়, ধুলোবালিও নখকে রুক্ষ ও শুষ্ক করে দেয়। তাই ধুলোবালি নখে লাগলে অবশ্যই হাত ধুয়ে নিতে হবে এবং ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে হবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *